অপরাধময়মনসিংহসারাদেশ

শেরপুরের বিষ্ণপুর বাজারে পাকা ঘর নির্মাণের হিড়িক

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার কাংশা ইউনিয়নের বিষ্ণপুর খুররম বাজার (চরণতলা কালী মেলা মাঠ সংলগ্ন) সরকারি বাজারে অবৈধভাবে পাকা স্থাপনা নির্মাণের হিড়িক পড়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উক্ত বাজারটি স্থাপনের পূর্বে তৎসংলগ্ন সরকারি কোন জায়গা না থাকায় জাপার সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম খন্দকার মোহাম্মদ খুররম ২৫ শতাংশ রেকডিও জমি ক্রয় করে বাংলাদেশ সরকারের নামে লিখে দেন। এরপর থেকে ওই জমির উপর টিনসেড ছাপড়া নির্মাণ করে বিভিন্ন ব্যবসায়ীরা ব্যবসা চালিয়ে আসলেও সেখানে কোন পাকা স্থাপনা নির্মাণ হয়নি। এতদিন ওই বাজারে পাকা স্থাপনা নির্মাণের সাহসও পাইনি কেহ।

 

হঠাৎ করে ওই বাজারের ইজারাদার জৈনক রফিক ডাক্তারের যোগসাজশে রুবেল, এরশাদ, সুলাইমান, মাসুদ, ও শফিকুল একযোগে ৫টি পাকা স্থাপনা নির্মাণ করছে। যাহার প্রায় ৭৫% কাজ শেষের দিকে। তাদের এ পাকা স্থাপনা নির্মাণের ফলে সরকারি বাজারটি গ্রাসের মুখে পড়ছে। অন্যান্য ব্যবসায়ীরা বাজারের সরকারি জায়গা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। অপরদিকে জাপার সাবেক সংসদ সদস্য মরহুম খন্দকার মোহাম্মদ খুররম এর দানটিও ভেস্তে যেতে বসেছে।

 

এ বিষয়ে বাজার ইজারাদার রফিক ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের নিরাপত্তার জন্যে দোকানগুলো পাকাকরণ করা হচ্ছে। এতে প্রশাসনের অনুমোদন নেয়ার কি আছে। সহকারি কমিশনার (ভুমি) আশরাফুল কবিরকে ওই বাজারে অবৈধভাবে পাকা ঘর উত্তোলন বিষয়ে জানালে তিনি বলেন, বিষয়টি বাজারের ইজাদারকে বলুন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. ফারুক আল মাসুদ অবৈধ ভাবে সরকারি জায়গাতে পাকাঘর নির্মাণের বিষয়টি তিনি দেখবেন বলে জানান। বিষ্ণপুর বাজারের সরকারি জায়গাতে পাকা স্থাপনা নির্মাণ বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে অনুরোধ করেছেন এলাকার সচেতন মহল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button