অপরাধআইন ও বিচারজেলা সংবাদঢাকাসারাদেশ

শালীকে ধর্ষণ ও অন্তঃসত্বা ঘটনার মামলায় দুলাভাইকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

সাজ্জাদ হোসেন সাজু, ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি:

দেশব্যাপী চাঞ্চল্যকর আপন দুলাভাই কর্তৃক নাবালিকা শালীর ধর্ষণ ও তিন মাসের অন্তঃসত্তা হওয়ার ঘটনার মামলার প্রধান ও একমাত্র আসামীকে গ্রেফতার করেছে ফরিদপুর র‌্যাব-৮, সিপিসি ২। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফরিদপুর র‌্যাব এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

ফরিদপুর র‌্যাব জানায়, র‌্যাব তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে মাদক ব্যবসায়ী, অস্ত্রধারী, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, জঙ্গি,ধর্ষণকারী ও খুনীদের বিরুদ্ধে আইনগত ভাবে শক্ত অবস্থান নিয়েছে। বাংলাদেশ আমার অহংকার স্লোগানে র‌্যাবের এই সমস্ত কর্মকান্ড দেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে ইতোমধ্যেই বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে র‌্যাব আরো জানায়, গত ১০ ডিসেম্বর ২২ তারিখে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানাধীন এক নাবালিকাকে (ভিকটিম) তার আপন দুলাভাই আসামি ইসমাইল (২৭) ভয়-ভীতি দেখিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরবর্তীতে ভিকটিম লোকও লজ্জার ভয় কাউকে বিষয়টি না জানিয়ে চুপ থাকে এবং তিন মাস পর ভিকটিম অন্তঃসত্তা হলে তার শারীরিক পরিবর্তনের কারণে বিষয়টি তার পিতা-মাতা জিজ্ঞাসাবাদ করলে উক্ত ঘটনাটি তার পরিবারকে জানায়। এই প্রেক্ষিতে  ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে আসামি ইসমাইল (২৭) এর বিরুদ্ধে গত ২৬ এপ্রিল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩ ধারায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করে। উক্ত ঘটনার পর থেকে আসামি বাড়ি থেকে পালিয়ে বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করছিল।

মামলা হওয়ার পর থেকে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্প উক্ত আসামিকে ধরার জন্য বিশেষ গোয়েন্দা তৎপরতা শুরু করে। এরই ধারাবাহিকতায় ফরিদপুর ক্যাম্প গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, উক্ত মামলার প্রধান এবং একমাত্র আসামী ইসমাইল ফরিদপুর জেলার মধুখালী থানাধীন এলাকায় অবস্থান করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার কে এম শাইখ আক্তার এর সার্বিক তত্বাবধানে ও ফরিদপুর ক্যাম্পের স্কোয়াড কমান্ডার সিনিয়র এএসপি মোঃ নাজমুল হকের নেতৃত্বে মঙ্গলবার একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ফরিদপুর জেলার মধুখালী থানার ডুমাইন গ্রাম থেকে নাবালিকা ধর্ষণ মামলার প্রধান এবং একমাত্র আসামি ইসমাইল(২৭), পিতা-মইনুদ্দিন, সাং-মদনডাঙ্গী (নারুয়া), থানা-বালিয়াকান্দি, জেলা-রাজবাড়ীকে গ্রেফতার করে। পরবর্তীতে উক্ত আসামিকে রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি থানায় হস্তান্তর করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button