অপরাধআইন ও বিচারজেলা সংবাদবরিশালসারাদেশ

মির্জাগঞ্জে ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধিঃ

পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৫ নং কাকড়াবুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মাশকুর হোসেনের বাড়িতে নৌকা মার্কার সমার্থকদের হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। যদিও নৌকা মার্কার প্রার্থী ও তার সমার্থকদের ভয়ে আগেই থেকেই তিনি বাড়ি ছাড়া ছিলেন।

মঙ্গলবার (১৬ ই মে) রাতে উপজেলার ৫ নং কাকড়াবুনিয় ইউনিয়ানের ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নৌকা মার্কার প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন এর সমার্থকরা ও নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ সেলিম মিয়ার সমার্থকদের সাথে মঙ্গলবার (১৬ ই মে) দুপুর ১ টার দিকে সংঘর্ষ হয় এতে উভয় পক্ষের আহত হন ১১ জন, সেই সূত্র ধরে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন পুলিশের কাছে মৌখিক অভিযোগ দিলে ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মাশকুর হোসেনকে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করান।
পুলিশের কাছে আরও বলেন, সংঘর্ষের ব্যপারে মোঃ মাশকুর হোসেন সব কিছু জানেন।পিছন থেকে ঘঠনার নেতৃত্ব দিয়েছেন বলে অভিযোগ করেন। পরে থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃআনোয়ার হোসেন তার বিরুদ্ধে কোন সঠিক অভিযোগ না পাওয়ায় থানা থেকে ছেড়ে দেন, ছেড়ে দেওয়ার ঘটনা জানতে পেরে রাতে নৌকা মার্কার প্রার্থী সমার্থকরা ক্ষিপ্ত হয়ে
ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মাশকুর হোসেন এর বাড়িতে আনুমানি রাত ৯ টার দিকে হামলা ও ভাঙচুর করে।

ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যানের স্ত্রী বলেন, হামলাকারীদের কয়েকজনকে আমি চিনতে পেরেছি। তারা হলো, বলবুল, রাসেদ, সোবাহান, ও মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে ২০-২৫ জনের একটি দল এ হামলা, ভাংচুর ঘটনা ঘটিয়েছে, এবং ভাংচুর করে জাওয়ার সময় বলে যায় মাশকুর কই বের হলে ওকে ছাপ খুন করে ফেলবো , আরো বলে আমার স্বামীকে যেখানে পাবে সেখানে ছাপ খুন হুমকি দিয়ে যায়।

তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে সোবাহান এর নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী দল ঘরের সামনের দরজা ভেঙে ঢুকে কোনও কিছু বুঝে ওঠার আগেই এলোপাতাড়ি ভাংচুর করতে থাকে।

ইউপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ মাশকুর রহমান বলেন, আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মোঃ সেলিম মিয়ার সমর্থকদের সাথে তুমুল সংঘর্ষ হয় এ সময় আমি উপস্থিত ছিলাম না তারপরেও আমাকে দোষী সাব্যস্ত করে পুলিশ দিয়ে অ্যারেস্ট করানো হয় পরে মির্জাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ঘটনার সত্যতা না পেয়ে আমাকে ছেড়ে দেন এ কথা শুনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রার্থীর সমার্থকরা আমার বাড়িতে হামলা চালায় এবং ভাঙচুর করে। এবং আমাকে জীবন নাশের হুমকি দেয়। এখন আমি নৌকা মার্কার প্রার্থী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন ও তার সমর্থকদের ভয়ে বাড়িতে যেতে পারছি না আমি আইনের কাছে সাহায্য চাই যাতে আমার জীবন ও জান মালের ক্ষতি না হয়।

ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মাসকুরের স্ত্রী আরো বলেন সন্ত্রাসীরা আমাকে সহ আমাদের ঘরের অন্যান্যে মহিলাদের অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে এবং আমাদেরকেও প্রান নাশের হুমকি দেয়।এই মুহুর্তে প্রশাসন ব্যবস্থা না নিলে যে কোন মুহুর্তে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।তাই প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন এর কাছে এ ঘটনার কথা সত্যতা জানতে চাইলে তাকে মুঠো ফোনে বার বার কল দেওয়া হলেও ফোন রিসিভ করেননি তিনি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button