বরিশালসারাদেশ

ভোলায় ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভ

সুইডেন ও নেদারল্যান্ড এ পবিত্র কোরআনে অগ্নিসংযোগ করে মুসলমানের পবিত্র গ্রন্থ আল কোরআন অবমাননা ও পাঠ্যপুস্তকে সাম্প্রদায় উস্কানি, তথ্য ও ইতিহাস বিকৃতি, ধর্মবিরোধী মতবাদের অনুপ্রবেশ, বিজাতীয় সংস্কৃতির আধিপত্য, ইসলামকে হেয় করার প্রতিবাদে এবং বিতর্কিত পাঠ্যপুস্তক সংশোধনের দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ভোলায় বিক্ষোভ মিছিল করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোলা জেলা শাখা।

 

 

শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারী) বাদ জুমা শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে সকল তৌহিদী জনতা কাটিনাথ রায়ের বাজারে অবস্থিত হাটখোলা জামে মসজিদের সামনে গিয়ে একত্রিত হয়। হাটখোলা জামে মসজিদের সামনে থেকে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দিয়ে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়। সেখান থেকে একটি মিছিল বের হয়ে মহাজনপট্টি ও বাংলা স্কুলের মোড় হয়ে নতুন বাজার গিয়ে শেষ হয়। মিছিল ও সমাবেশে নেতৃত্ব দেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর ভোলা জেলার নেতৃবৃন্দ। মিছিলে সুইডেন ও নেদারল্যান্ড বিরোধী বিভিন্ন প্লেকার্ড শোভা পায়।

 

 

মিছিলের আগে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন বাংলাদেশ এর বরিশাল বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ওবায়েদ বিন মোস্তফা, ওলামা-মাশায়েখ আইম্মা পরিষদের ভোলা জেলার সহ-সভাপতি মাওলানা ইয়াসিন নবীপুর, ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ইলিয়াস হাসান, বাংলাদেশ ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় দপ্তর সম্পাদক এম হাসিব গোলদার, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোলা জেলা শাখার সহ-সভাপতি মাওলানা মিজানুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন ভোলা জেলা শাখার সহ-সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমান মমতাজ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ভোলা জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা তরিকুল ইসলাম তারিক, জাতীয় শিক্ষক ফোরাম ভোলা জেলার সহ-সভাপতি আব্দুর রহমান চৌধুরী, ওলামা মাশায়েখ আইম্মা পরিষদ ভোলা জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা তাজ উদ্দিন ফারুকী, ইসলামী আন্দোলন ভোলা জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুফতি আব্দুল মোমিন, ইসলামী আন্দোলন ভোলা জেলা শাখার সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা ইউসুফ আদনান, ইসলামী আন্দোলন পৌর শাখার সভাপতি মাওলানা আক্তার হোসাইন, ইসলামী যুব আন্দোলন ভোলা জেলা (উত্তর) শাখার সভাপতি মাওলানা শোয়াইব আহম্মদ, ইসলামী ছাত্র আন্দোলন ভোলা জেলা শাখার সহ-সভাপতি মোঃ হাবিবুল্লাহ।

 

 

বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, বিশ্বের শতকোটি মানুষের ধর্ম ইসলামের মহাপবিত্র গ্রন্থ আল কুরআন এর ওপরে আঘাত করা ও অবমাননাকরা পশ্চিমাদের মানসিক রোগে পরিণত হয়েছে। ইসলামবিদ্বেষি এক শ্রেণীর লেখক, রাজনীতিবিদদের অব্যহত মিথ্যা প্রচারণার ফলে পশ্চিমা দুনিয়ায় ইসলাম ফোবিয়ার মহামারি তৈরি হয়েছে। কোটি মানুষের বিশ্বাসকে আঘাত করার প্রবণতা দিন দিন বাড়ছে। যা বিশ্বব্যাপী অশান্তি বাড়াচ্ছে ও ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করছে। তারই ধারবাহিকতায় সুইডেনে ও নেদারল্যান্ড এর রাজনৈতিক নেতা কতৃক সরকারি অনুমতি নিয়ে প্রকাশ্যে কোরআন পোড়ানোর ঘটনা ঘটেছে। পশ্চিমাদের এই ধর্মীয় উষ্কানির তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানায় বাংলার মানুষ।

 

 

তারা বলেন,ইসলামবিরোধী শক্তিগুলো বার বার ইসলাম, কোরআন ও মুসলমানদের টার্গেটে পরিণত করে কাজ করছে। বিশ্বব্যাপী কোরআনি শাসন প্রতিষ্ঠা ও বাইতুল আকসা থেকে ইসরাইলিদের উচ্ছেদ করেই এর বদলা নেওয়া হবে, ইনশাআল্লাহ। এজন্য মুসলিমবিশ্বকে নেদারল্যান্ড ও সুইডেনের বিরুদ্ধে জোরালো প্রতিবা করতে হবে।

 

 

পাঠ্যপুস্তকে ডারউইনের তথ্যের কথা তুলে ধরে বক্তারা বলেন পশ্চিমা বিজাতিদের সংস্কৃতি উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে একটি মহল আমাদের পাঠ্যপুস্তকে ঢুকিয়ে দিয়েছে। সরকারকে সতর্ক করে তারা আরো বলেন সরকার যদি অতি দ্রুত বিতর্কিত এই পাঠ্যপুস্তক সংশোধন না করে তাহলে সরকারকে এর জন্য চরম মূল্য দিতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button