রংপুরসারাদেশ

খানসামা উপজেলার কথা বলা মসজিদটি আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে

নুর-আমিন,খানসামা,(দিনাজপুর)প্রতিনিধিঃ-
দিনাজপুর খানসামা উপজেলার কালের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে কথা বলা মসজিদ।ধারণা করা হয় ২৫০০ বছরের এ প্রাচীণ মসজিদটিকে ঘিরে রয়েছে নানা কথা।এ এলাকার প্রবীণ জনসাধারণ ব্যাক্তিরা এ মসজিদকে কথা বলা মসজিদ কিংবা আওকরা মসজিদ হিসেবে চিনে।
চিকন ইটে নির্মিত দেয়ালে নকশা করা মসজিদটি উপজেলার আঙ্গারপাড়া ইউনিয়নের বেলান নদীর পূর্ব ধারে মির্জা মাঠ নামক স্থানে অবস্থিত।
বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, এক সময় মসজিদটির আশপাশে মুসলিম জনবসতি থাকার কারণে এখানে ১১৭২সালে মীর্জা লাল বেগ মুসলিম সম্প্রদায়ের নামাজ আদায়ের লক্ষ্যে এই মসজিদ নির্মাণ করেন।
এদিকে, মসজিদটি প্রতিষ্ঠার সময় কে কি নাম রেখেছেন তাও কেউ বলতে পারে না। পরবর্তী সময়ে লোকজন মসজিটির পাশ দিয়ে চলাচলের সময় এটির মধ্যবর্তী অংশে দূর থেকে দাঁড়িয়ে কথা বললে এক সময় জোরে প্রতিধ্বনির সৃষ্টি হত। তাই শুনে তারা ভাবত মসজিদটি তাদের কথার উত্তর দিচ্ছে।
এ থেকে মসজিদটির নাম হয়ে যায় আওকরা মসজিদ অর্থাৎ কথা বলা মসজিদ। এখনও এটির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় শব্দ করে কথা বলে প্রতিধ্বনি শোনার আশায়। কিন্তু মসজিদের দেয়াল ফেটে গিয়ে নষ্ট হওয়ায় এবং এর গায়ে আগাছা পরিপূর্ণ হওয়ায় আগের মত আর আওয়াজ হয় না।মসজিদটিতে সর্বশেষ কত সালে নামাজ আদায় হয়েছে তা জানা যায়নি।
ইতিহাসের এসব প্রাচীন সাক্ষী  আগামী প্রজম্মের কাছে তুলে ধরে বিলুপ্তির হাত থেকে রক্ষা করার দায়িত্ব সরকারের।
খানসামা উপজেলার আওকরা মসজিদটি প্রশাসের হস্তক্ষেপে নতুন রুপ দিয়ে সরকারি এই সম্পত্তি রক্ষা করতে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করা যাচ্ছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button