অপরাধখুলনাজেলা সংবাদ

কুষ্টিয়ায় সালিসি বৈঠকে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের নির্বাচিত সদস্য কাজল হোসেন (৪২)-কে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।  বুধবার (১৫ মার্চ) সন্ধ্যায় সর্দারপাড়া মোড়ে শালিসে ( গ্রাম্য বিচারী বৈঠাক) বসা অবস্থায় তাকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন কাজলের মৃত্যু হয়।

জানা যায়, দৌলতপুর সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার কাজলের ভাতিজা ও তার সাথে থাকা কয়েকজন যুবক বুধবার দুপুরে আব্দুল মাবুদের ছেলে সোহাগ ও ভাতিজা বিজয় কে মারধর করে।

এবিষয় নিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় আপোষ মিমাংসা করার জন্য কাজল মেম্বার আব্দুল মাবুদ এর বাসায় যায়। সেখানে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আব্দুল মাবুদ কাজল মেম্বার কে হাসুয়া দিয়ে ঘারে কোপ দেয়। পরবর্তীতে তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে মৃত্যুবরণ করেন। এঘটনার পর এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।

কাজল মেম্বার কুষ্টিয়া দৌলতপুর সদর ইউনিয়নের দৌলতখালী সর্দারপাড়া এলাকার মৃত সুন্নত মন্ডলের ছেলে।

দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মজিবুর রহমান দৈনিক সত্যের কণ্ঠ কে জানান, কাজল মেম্বারের ভাগ্নে ভাস্তে স্থানীয় মাহামুদকে মারধর করে। সে বিষয় নিয়ে শালিস হওয়ার কথা হচ্ছিল এমন সময় মাহামুদ হাসুয়া দিয়ে কাজল মেম্বারের ঘারে কোপ দেয়। এতে কাজল মেম্বারের মৃত্যু হয়। এঘটনায় মাবুদের স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button