জাতীয়ঢাকাসারাদেশ

আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে টোল আদায়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে টোল আদায়ের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ প্রদান করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।

মঙ্গলবার( ৪ এপ্রিল) রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় তিনি এ কথা বলেন ।

তিনি আরও বলেন, ‘ সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করে অবকাঠামো নির্মাণ করছে । তাই আঞ্চলিক মহাসড়কে ন্যূনতম হারে হলেও টোল আদায়ের ব্যবস্থা করতে হবে । এতে মানুষের মধ্যে টোল দেয়ার সংস্কৃতিও গড়ে উঠবে । ’

সভায় একনেক চেয়ারপার্সন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন ।
সভাশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন ।
পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী একনেক সভায় রাজধানীর বঙ্গবাজারে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুখ প্রকাশ করেছেন ।
মান্নান বলেন, ছোট জায়গায় অনেক বেশি দোকান । তারা গাদাগাদি করে ব্যবসা করছেন । নিশ্চয়ই তারা ইচ্ছা করে সেটি করছে না, আমরা সেটি বুঝি । কিভাবে এর সমাধান হতে পারে- এসব নিয়ে প্রধানমন্ত্রী কথা বলেছেন ।
পরিকল্পনামন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর অনুশাসন তুলে ধরে আরও বলেন, তিনি প্রত্যেক স্কুলে টয়লেট ও স্যানিটেশনের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দিয়েছেন । প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, স্যানিটেশন বিহীন কোন স্কুল চলবে না ।

এম এ মান্নান জানান, একনেক সভায় ১১ প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়েছে । এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় হবে ৪ হাজার ২৫২ কোটি ৬৬ লাখ টাকা । এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ব্যয় হবে ৩ হাজার ৬৪৫ কোটি ২১ লাখ টাকা এবং বৈদেশিক অর্থায়ন থেকে পাওয়া যাবে ৬০৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ।
অনুমোদিত প্রকল্পসমূহের মধ্যে ‘ ঢাকা সিএমএইচ এ ক্যানসার সেন্টার নির্মাণ ’ প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ২৪৬ কোটি টাকা । ঢাকা শহর সন্নিকটবর্তী এলাকায় ১০টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্প, যার ব্যয় হবে ৭৬ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ।
‘ ঢাকাস্থ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা নির্মাণ প্রকল্প ’ বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ১৩১ কোটি ৯১ লাখ টাকা । বছরব্যাপী ফল উৎপাদনের মাধ্যমে পুষ্টি উন্নয়ন প্রকল্প, এর বাস্তবায়ন ব্যয় ২১১ কোটি ৩২ লাখ টাকা । ফ্লাড রিকনস্ট্রাকশন ইমারজেন্সি অ্যাসিসটেন্স প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৩০০ কোটি টাকা ।

জামালপুর জেলার পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় হবে ১ হাজার ১২৫ কোটি টাকা । ওয়াশ সেক্টর স্ট্রেনথেনিং অ্যান্ড স্যানিটেশন( সানমাকর্স) ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট ইন বাংলাদেশ প্রকল্প, যার ব্যয় ধরা হয়েছে ১৫৬ কোটি ২৫ লাখ টাকা । ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট সাসটেইনেবল ওয়াটার সাপ্লাই, স্যানিটেশন এন্ড হাইজিন প্রজেক্ট ইন বাংলাদেশ প্রকল্প, তাতে ব্যয় ধরা হয়েছে ২৭৪ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ।

মোংলা বন্দর চ্যানেলের ইনার বারে ড্রেজিং প্রকল্প, যার ব্যয় হবে ১৯৮ কোটি ৫৪ লাখ টাকা । এছাড়া ‘ ভূলতা- আড়াইহাজার- বাঞ্ছারামপুর- নবীনগর- শিবপুর- রাধিকা আঞ্চলিক মহাসড়ক ও সরাইল- নাসিরনগর- লাখাই আঞ্চলিক মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন প্রকল্প এবং সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট ’ প্রকল্প অনুমোদন পেয়েছে ।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ফায়ার সার্ভিস এর সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সরকার কাজ করবে । তবে বঙ্গবাজারে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় আমাদের এটাও ভাবতে হবে যে, আমাদের মধ্যে সচেতনতা আরও বাড়াতে হবে ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button